ATM জালিয়াতি থেকে কীভাবে বাঁচবেন ?

2017 সালে এপ্রিল মাসের তথ্য অনুযায়ী ভারতে 2,36,199 জন মানুষ এটিএম কার্ড ব্যবহার করেন।

আর এখন সেই সংখ্যাটা যে তার থেকেও অনেক বেশি তা সহজেই বোঝা যায় ।

আমরা প্রায়ই এটিএম হ্যাক এর কথা শুনে থাকি, হ্যাকাররা নিজেদের পদ্ধতিকে অবলম্বন করে এটিএম হ্যাক করে চলেছে।

ব্যাংক কর্তৃপক্ষ নিজেদের সিকিউরিটি সিস্টেম উন্নত করার সত্বেও এটিএম হ্যাক বন্ধ করতে নাজেহাল হয়ে পড়ছে।

এটিএম জালিয়াতি থেকে কীভাবে বাঁচবেন ?

1 ) আপনার এটিএম এর পিন নম্বর কোনভাবেই কারোর সাথেই শেয়ার করবেন না। সে আপনার যত প্রিয়জনই হোক না কেন !

2) এটিএম এর পিন নম্বর কোথাও লিখে রাখবেন না । এতে আপনার এটিএম থেকে টাকা লোপাট হবার সম্ভাবনা অনেকটাই বেশি থাকে।

3) এটিএম পিন টাইপ করার সময় কিপ্যাড টিকে ভালো করে হাত দিয়ে ঢেকে রেখে টাইপ করুন। যাতে লুকিয়ে কেউ দেখে নিতে না পারে।

4) যেকোনো এটিএম মেশিনে কার্ড ঢোকানোর আগে ভালো করে দেখেনিন সেখানে অন্যকোনো মেশিন লাগানো নেই তো ! কোনো কিছু সন্দেহজনক মনে হলেই এটিএম গার্ডের দৃষ্টি আকর্ষণ করুন।

5) টাকা তোলার পর যতক্ষণ না এটিএম মেশিনের এর স্ক্রিন পুনরায় আগের অবস্থায় ফিরে আসছে ততক্ষণ এটিএম থেকে বেরোবেন না !

6) আপনার এটিএম কার্ডের নম্বর ও পিছনের সিভিভি কারোর সাথে শেয়ার করবেন না।

7) কার্ড ব্লক করে দেওয়া হবে বা কার্ডের কেওয়াইসি করতে হবে তাই আপনার পিন নম্বরটি জানতে চেয়ে কোনো মেসেজ এলে কখনোই আপনার পিন বলবেন না !

8) অবশেষে বলি যদি কখনো আপনার এটিএম কার্ড নিয়ে কোনোরকম মনে সংশয় সৃষ্টি হয় তাহলে কোন কিছু না ভেবে অতিশীঘ্রই ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।

Click Here to Leave a Comment Below 0 comments

Leave a Reply: